Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৫ August ২০১৯

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্প

প্রকল্পের নাম

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্প

প্রকল্পের অবস্থান

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর-কুড়িল-বনানী-মহাখালী-তেজগাঁও-মগবাজার-কমলাপুর-সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ী-ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়ক(কুতুবখালী)।

প্রাক্কলিত ব্যয়

৮,৯৪০ কোটি টাকা।

Viability Gap Funding(VGF)=২৪১৩ কোটি টাকা

নির্মাণের কারণ

* ঢাকা শহরের উত্তর-দক্ষিণ অংশের সংযোগ ও ট্রাফিক ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি।

* যাত্রাসময় হ্রাস ও ভ্রমন আরামদায়ক।

* উত্তর ও দক্ষিণ গেইটওয়ের সংযোগ উন্নত।

* এশিয়ান হাইওয়ে (AH) করিডর এ উন্নত পর্যায়ের সেবা প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি এটি আঞ্চলিক সংযোগকে উন্নত করবে।

* যোগাযোগ দক্ষতা অর্জন,  যোগাযোগ ব্যয় এবং যানবাহন পরিচালন খরচ হ্রাস।

অর্থনৈতিক প্রভাব

প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ঢাকা শহরের যানজট অনেকাংশে কমে যাবে এবং ভ্রমনের সময় ও খরচ হ্রাস পাবে। সার্বিকভাবে যোগাযোগ ব্যবস্থার সহজিকরণ, আধুনিকায়ন হলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলবে।

জিডিপি-তে ইতিবাচক প্রভাব

 প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে জিডিপিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের মূল অংশের দৈর্ঘ্য ১৯.৭৩ কি.মি. যাতে  র‌্যাম্প ৩১ টি, সর্বমোট দৈর্ঘ্য (র‌্যাম্পসহ) ৪৬.৭৩ কি.মি.।

প্রকল্পটি দৈর্ঘ্যর ভিত্তিতে ৩টি ভাগে বিভক্ত।

০১) ১ম ধাপ-এক্সপ্রেসওয়ে দৈর্ঘ্যের ৭.৪৫ কি:মি (৩৮%)।

০২)২য় ধাপ- এক্সপ্রেসওয়ে দৈর্ঘ্যের ৫.৮৫ কি.মি (৩০%)।
০৩) ৩য় ধাপ-এক্সপ্রেসওয়ে দৈর্ঘ্যের অবশিষ্টাংশ (৩২%)

পুনর্বাসন

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্পের পুনর্বাসন ভিলেজ নির্মাণের জন্য  নোটিফিকেশন অব এ্যাওয়ার্ড (১০০০ sft)

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্পের পুনর্বাসন ভিলেজ নির্মাণের জন্য  নোটিফিকেশন অব এ্যাওয়ার্ড (৮০০০ sft)

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্পের পুনর্বাসন ভিলেজ নির্মাণের জন্য  নোটিফিকেশন অব এ্যাওয়ার্ড (আনুষঙ্গিক)

ডিসেম্বর ২০১৮ সাল পর্যন্ত ডিসি অফিসের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থ প্রদান: ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ডিসি অফিসের মাধ্যমে সর্বমোট ১৩৭৯ জন ক্ষতিগ্রস্তদেরকে সর্বমোট ৬৫৮,৯৪,৪৩,৮৩০.৭৭ (ছয়শত আটান্ন কোটি চুরানব্বই লক্ষ তেতাল্লিশ হাজার আটশত ত্রিশ টাকা সাতাত্তর পয়সা) টাকা প্রদান করা হয়েছে।

১ম ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ১৯১; টাকা- ৬৩২৪১৯৮৭৬. ৮৭

২য় ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ৭৯৪; টাকা- ৪৭৫৪৫৯২৪১.২৫

৩য় ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ৩৯৪; টাকা- ১২০৬১৬৪৭১২.৬৫

মোট ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ১৩৭৯; টাকা- ৬৫৮,৯৪,৪৩,৮৩০.৭৭

ডিসেম্বর ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ থেকে INGO প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে অর্থ প্রদান: ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত  বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ থেকে INGO প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সর্বমোট ৬,১৭১ জন ক্ষতিগ্রস্তদেরকে সর্বমোট ৩৯৬,৪৬,৪৫,০০২.১৪ (তিনশত ছিয়ানব্বই কোটি ছেচল্লিশ লক্ষ পর্যতাল্লিশ হাজার দুই টাকা চৌদ্দ পয়সা) টাকা প্রদান করা হয়েছে।

১ম ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ৫২৪; টাকা- ১৯১,১৬,৭১,৭৮৯.০৩

২য় ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ৪৪৯১; টাকা- ১৭০,২৮,৮১,৯৭০.৫২

৩য় ধাপ: ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ৩৯৪; টাকা- ৩৫,০০,৯১,২৪

মোট ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা- ১৩৭৯; টাকা- ৬৫৮,৯৪,৪৩,৮৩০.৭৭

পুনর্বাসন বিষয়ক সর্বশষ অগ্রগতি 

বাস্তবায়ন অগ্রগতি

প্রকল্পের সর্বশেষ অগ্রগতি

ছবি

ভিডিও


Share with :

Facebook Facebook